পুলিশের লাথিতে পরিবহন শ্রমিকের মৃত্যুর অভিযোগ,

মাগুরা ওয়াপদা বাজার এলাকায় পুলিশের লাথিতে মো. সালাম শেখ (৫০) নামে এক পরিবহন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তিনি ফরিদপুর বাস মালিক সমিতির কাউন্টার মাস্টার ছিলেন। বাড়ি শ্রীপুর উপজেলার রায়নগর গ্রামে। বাবার নাম মৃত মো. আসির উদ্দিন শেখ।

এদিকে নাকোল পুলিশ ফাঁড়ির পক্ষ থেকে এ লাথিতে তার মৃত্যুর অভিযোগ অস্বীকার করে বলা হয়েছে তিনি হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন।

শনিবার (১৬জুলাই) বিকেলে ওয়াপদা বাজারে অবস্থিত ফরিদপুর বাস মালিক সমিতির কাউন্টারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে বাস কাউন্টার শ্রমিকরা আগুন জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন।

নিহতের বড় ভাই মো. আব্দুল বারিক শেখ অভিযোগ করেন, নূপুর পরিবহনের যাত্রী ও বাস মালিক সমিতির কাউন্টার মাস্টার মো. সালাম শেখের মধ্যে কথা কাটা কাটি ও হাতাহাতি হয়। এরই এক পর্যায়ে ওই যাত্রী মাগুরা পুলিশ সুপারের কাছে মোবাইলে অভিযোগ জানান। পরে নাকোল পুলিশ ফাঁড়ির একটি দল ঘটনাস্থলে এসে মো. সালাম শেখে বুকে লাথি মারে। পরে তাকে পুলিশের গাড়িতে করে নাকোল পুলিশ ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে যায়। সেখানে শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে মাগুরা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে মাগুরা সদর হাসপাতালে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. হাবিব হোসেন বলেন, মৃত অবস্থায় সালাম শেখ নামে এক ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। কিন্তু ওই ব্যক্তি ঠিক কী কারণে মারা গেছেন তা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে।

মাগুরা জেলা পুলিশ সুপার মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, নাকোল পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তুলে এনেছিল। কিন্তু কোনো নির্যাতন করেনি। তবে ওই ব্যক্তির কী কারণে মৃত্যু হয়েছে তা ময়নাতন্তের মাধ্যমে জানা যাবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *